বিনোদন ফ্যাশন

নিঃস্বার্থ ভালোবাসা হারিয়ে ফেলার ভয়েই অন্তঃসত্ত্বা নুসরত।

ডেস্ক: সত্যিকারের ভালোবাসা খুঁজে পাওয়া বড়ই দুষ্কর, আর সেই ভালোবাসার খোঁজ মিললেও হারিয়ে ফেলবার একটা ভয় সবসময় কাজ করে মনের ভিতর। এই দুশ্চিতায় ভুগছেন নুসরত জাহান? বন্ধুত্ব দিবসে ভালোবাসার কথা বলতে গিয়ে এই আশঙ্ক্ষার কথাই জানালেন হবু মা। যা দেখে অনেকের মনেই প্রশ্ন তবে কি যশের সঙ্গে নিজের প্রেম সম্পর্ক নিয়ে চিন্তায় ভুগছেন নুসরত? কার উদ্দেশে নুসরতের এই বার্তা।

রবিবার বিশ্বজুড়ে পালিত হচ্ছে ফ্রেন্ডশিপ ডে। এই বিশেষ দিনের দুপুর বেলা ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে যশের পোষ্য সারমেয় হ্যাপির সঙ্গে একটি মিষ্টি ছবি পোস্ট করলেন নুসরত। রোদচশমা চোখে কালো ফুল-স্লিভস টি-শার্ট আর প্যান্টে ধরা দিয়েছেন নুসরত। তাঁর একদম কোলের কাছে বসে আদর খাচ্ছে হ্যাপি।

এই ছবির ক্যাপশনে নুসরত লিখেছেন, ‘এমন একটা মন খুঁজে পাওয়া কী সুন্দর যে কোনও কিছু পাওয়ার আশা না করেই তোমাকে ভালোবাসবে। নিঃস্বার্থ ভালোবাসা এতই দামি, যে আপনি ভাবেন তা ধরে রাখতে পারবেন না! অহংকার এই ভালবাসার মূল্য বুঝবে না, শুধু বন্ধুত্ব বুঝবে, যে বন্ধুত্বে কোনও ছলনা নেই। স্বার্থপর দুনিয়ায় নিঃস্বার্থ বন্ধুত্ব পাওয়া আর্শীবাদ. যেটা উদযাপন করুন। সকলকে জানাই বন্ধুত্ব দিবসের শুভেচ্ছা’।

নুসরতের এই মিষ্টি ছবিতে লাইকের বন্যা। কিন্তু অনেক প্রশ্নও উস্কে দিল এই ছবি। নুসরতের এই নিঃস্বার্থ ভালোবাসা কি শুধু সারমেয়র প্রতি। নাকি মন কেমনের কথাও জড়িয়ে রয়েছে, সমাজের কটাক্ষ, পরিচিত বন্ধুদের প্রয়োজনে পাশে না পাওয়ার যে যন্ত্রাণা তার ইঙ্গিত দিলেন না তো নুসরত?

এদিন ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতেও সুদিনের বন্ধুদের উদ্দেশে করা বার্তা দিলেন নুসরত। মোটিভেশন্যাল স্পিকার গুরু গোপাল দাসের একটি উদ্ধৃতি শেয়ার করে নেন বসিরহাটের তারকা সাংসদ। যেখানে লেখা রয়েছে, ‘সেই সমস্ত মানুষের সঙ্গে থাকুন যাঁরা আপনার সঠিক মূল্য বুঝবে, শুধুমাত্র মানুষের সঙ্গে হ্যাং আউট করবেন না, যাঁরা আপনাকে বলপূর্বক ভুল পথে চালিত করে আপনার জীবনের মান নীচু স্তরে নিয়ে আসবে’।

নিথিল জৈন অধ্যায় জীবন থেকে মুছে এখন ভাবী সন্তান আর যশ দাশগুপ্তর সঙ্গে নতুন করে জীবন সাজাচ্ছেন নুসরত জাহান। কিন্তু এই নতুন জীবনে কোন মানুষদের সঙ্গে ‘হ্যাং আউট’ না করবার সিদ্ধান্ত নিলেন অভিনেত্রী? সময় হয়ত এই প্রশ্নের জবাব দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *