জেলার খবর

রাসের মরশুমে দীঘার সমুদ্র সৈকতে পর্যটকদের ঢ্ল, হরিনাম সংকীর্তন এ মুখরিত সমুদ্র সুন্দরী দীঘা।

তনুশ্রী ভান্ডারী  ঃ- কোভিড পরিস্থিতি ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের রেশ কাটিয়ে ছন্দে ফিরছে রাজ্য। ভ্রমনপিপাসু বাঙালি ব্যাগ পত্র গুছিয়ে ঘুরতে বেরিয়ে পড়েছে। রাস উৎসবের মরশুমে দিঘাতে পর্যটকের ভিড় জমেছে। তীর্থযাত্রীরা যেন রাসের পুণ্যস্নানে দিঘার সমুদ্রে ডুব দিয়েছে। তেমনি ভ্রমণপিপাসুরাও টানা তিন দিনের ছুটি উপভোগ করতে পাড়ি দিয়েছেন দীঘার সমুদ্র সৈকতে । করোনা ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের জেরে গত প্রায় দু’বছর ধরে রাজ্যের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র দিঘাতে পর্যটকদের সেভাবে দেখা মেলেনি। পরবর্তীতে কোভিড পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলেও ভ্যাকসিন নিয়ে প্রশাসনের কড়া নজরদারির জেরে পর্যটকেরা দীঘার প্রতি বিমুখ হয়ে পড়েছিলেন। তবে এখন কোভিড গ্রাফ অনেকটাই নিম্নমুখী। জীবনযাত্রা অনেকটাই স্বাভাবিক ছন্দে ফিরে এসেছে, তাছাড়া পুজোর ছুটির রেশ এখনো পুরোপুরি কাটেনি। তাই ফের পর্যটকদের ভিড়ে মাতোয়ারা হয়ে উঠেছে স্বপ্নসুন্দরী দীঘা।
আবহাওয়া মনোরম থাকায় এই দিন সমুদ্রস্নানে মেতে ওঠেন পর্যটকেরা। এদিন শুধু সমুদ্রস্নান নয়, সকাল থেকে হরিনাম সংকীর্তন এ মাতোয়ারা হয়ে ওঠে দীঘা সমুদ্র সৈকত। রাস পূর্ণিমা উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কৃষ্ণ ভক্তরা হরিনাম সংকীর্তন করতে করতে দীঘার সমুদ্র সৈকতে আসেন,এবং খোল করতাল সহযোগে শোভাযাত্রা করেন। ফলে সকাল থেকেই খোল করতাল ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে দীঘা সমুদ্র সৈকত। শোভাযাত্রা শেষে সমুদ্র স্নান করেন তারা, কৃষ্ণভক্ত বোষ্টমরা কয়েকদিন ধরে উপোস থেকে এই দিন সমুদ্রে স্নান করেন। ও পূজা দিয়ে সেই উপোস ভাঙেন।প্রতি বছর এই দিনটিতে কৃষ্ণভক্তদের বিশেষ শোভাযাত্রা দেখার জন্য অনেকেই জড়ো হন দীঘায়। এবছর ও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। ফলে এই দিন হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে দীঘা সৈকতে,সবমিলিয়ে বহুদিন পর দীঘায় পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *