রাজনৈতিক খবর রাজ্যের খবর

“মানুষের করের টাকায় লোক দেখাতে ধ্যানে বসেছেন” – ভোট দিয়ে বেরিয়েই মোদীকে তোপ অভিষেকের।

ভবানীপুরের মিত্র ইনস্টিটিউশনে ভোট দিলেন ডায়মন্ড হারবারের তৃণমূল প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার জেতানোর নয়, হারানোর নির্বাচন। ভোট দিয়ে বেরিয়ে এমনই দাবি করলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। ভোট দিয়ে বেরিয়ে নরেন্দ্র মোদীকে তোপ অভিষেকের। শনিবার যে ন’টি লোকসভা আসনে ভোটগ্রহণ চলছে, সেগুলিতে ২০১৯ সালেও জয়ী হয়েছিল তৃণমূল। অভিষেক বলেন ,  “দিন আনা দিন খাওয়া মানুষজন ৪ তারিখ এদের উচিত শিক্ষা দেবে।” আত্মবিশ্বাসী অভিষেকের দাবি, “শেষ ৬ দফায় ২৩ পার করে গেছি। আজ ৯ আসনেও আমরা আশাবাদী। এসব আসন পাব।”

প্রধানমন্ত্রীর ধ্যান নিয়েও কটাক্ষ করেছেন অভিষেক। তাঁর কথায়, “প্রধানমন্ত্রী ভয় পেয়েছেন। মানুষের করের টাকায় লোক দেখাতে ধ্যানে বসেছেন। আমিও ১০ মিনিট ধ্যান করে বেরিয়েছি, কিন্তু বাড়িতে। লোক দেখাতে নয়। লজ্জা নেই এদের।” তাঁর সংযোজন, “আপনার এই মিডিয়া নিয়ে ধ্যান করতে বসায় কোনও গরিবের উপকার হবে ? হলে করুন। আপত্তি নেই।  অভিষেক জানান, ৪ জুন, ভোটগণনার দিন ‘বডি ল্যাঙ্গোয়েজ’ আরও ভাল হবে। ওই দিন কথা হবে। অভিষেক জানিয়েছেন, ‘‘নয়ে নয় নিয়ে আশাবাদী। আগের বারও জিতেছি। সারা বছর কাজ করেছি।”

রাজ্যে তৃণমূলের ফল কী ? ‘ইন্ডিয়া’রই বা ফল কী হবে ? অভিষেক জানিয়েছেন, সবটাই জানা যাবে ৪ জুন। সে দিন বিজেপির বিদায় ঘণ্টা বাজবে। গরিব-বিরোধী, কৃষক-বিরোধী সরকারের পতন হবে। এই প্রসঙ্গে বিজেপির দাবির কথা মনে করিয়েছেন সাংবাদিকরা। অভিষেক পাল্টা বলেন, ‘‘গত বার লোকসভা নির্বাচনে ১৮ আসন পেয়েছিল বিজেপি। টেকনিক্যালি ২০টি আসন। এবার তার নীচে গেলে দায়িত্ব কার ? জিজ্ঞেস করুন। আগে ওরা বলেছিল ৩৫, তার পর দাবি করছে ২৫ আসন পাবে। এখন কেউ বলছে ২২ আসন পাবে। সব দেখা যাবে ৪ জুন। আপনাদের মুখোমুখি হয়ে কথা বলব। তিনি বলেন, ‘‘তিন মাস ধরে রাস্তায় ঘুরেছি, বুঝেছি মানুষের মোহভঙ্গ হয়েছে। গরম তুলনামূলক কম। আমি আশাবাদী, বিপুল সংখ্যক মানুষ ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। বিগত পাঁচ বছর ধরে বাংলার প্রতি যে ভাবে বঞ্চনা হয়েছে, তার জবাব মানুষ দেবেন। প্রতিফলন ৪ তারিখ দেখতে পাবেন। কেন্দ্র সরকারের বিরুদ্ধে যে রাগ, তার প্রতিফলন থাকবে।’’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *