দেশের খবর স্বাস্থ্য

মদ কিনতে এবার চাই আধার কার্ড ও করোনা টিকার শংসাপত্র

ডেস্ক, বিউরো: সুরাপ্রেমীদের জন্য দুঃসংবাদ। এবার আর দোকানে গিয়ে লাইনে দাঁড়ালেই মিলবে না মদ। প্রিয় পানীয়ের জন্য দেখাতে হবে আধার কার্ড ও করোনা টিকা নেওয়ার শংসাপত্র। এমনই নিদান জারি করেছে তামিলনাডুর নীলগিরি জেলা প্রশাসন। চলতি মাসের প্রথম দিন থেকেই নয়া নির্দেশ কার্যকর হয়েছে। রাজ্যে একমাত্র নীলগিরিতেই এমন কড়া নিয়ম চালু হয়েছে। নীলগিরি জেলা প্রশাসনের এমন নিদানে হাড়ে-হাড়ে চটেছেন সুরাপ্রেমীরা। যদিও জেলাশাসক জে ইনোসেন্ট দিব্যার দাবি, ‘জেলার প্রত্যেক বাসিন্দাকে করোনা টিকাকরণের আওতায় নিয়ে আসার জন্যই এমন পদক্ষেপ করা হয়েছে।’

তবে সুরাপ্রেমীদের বিরুদ্ধে এমন কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার পিছনে অন্য কারণ রয়েছে। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই নীলগিরির ৪৫ ঊর্ধ্ব নাগরিকদের প্রায় ৯৭ শতাংশকে করোনা টিকাকরণের আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছে। কিন্তু সুরা প্রেমী ও মাদকাসক্তদের টিকাকরণের আওতায় আনতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন স্বাস্থ্য ও প্রশাসনিক আধিকারিকরা। যেহেতু করোনা টিকা নেওয়ার পরে ২ থেকে ৩ দিন কোনও সুরা পান করা যাবে না, তাই সুরা প্রেমীরা কিছুতেই টিকা নিতে রাজি হচ্ছেন না।

সুরা প্রেমীদের করোনা টিকা নিতে বাধ্য করায় তাই মদ কেনার ক্ষেত্রে করোনার টিকা নেওয়ার শংসাপত্র দেখানো বাধ্যতামূলক করেছেন জেলা প্রশাসনের শীর্ষ আধিকারিকরা। জেলাশাসক জে ইনোসেন্ট দিব্যা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ‘এখন থেকে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা টাসমাকের অনুমোদিত দোকান থেকে মদ কিনতে হলে করোনা টিকার শংসাপত্র দেখাতে হবে। অন্তত করোনা টিকার একটি ডোজ নেওয়ার প্রমাণপত্র দেখাতে হবে।’

তাঁর কথায়, ‘কিছু সুরা প্রেমীর কারণে ১০০ শতাংশ টিকাকরণ কর্মসূচির যে লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে, তা মুখ থুবড়ে পড়ুক তা চাই না। বারবার বুঝিয়ে কোনও লাভ না হওয়ায় বাধ্য হয়েই কঠোর রাস্তায় হাঁটতে হয়েছে।’

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *