আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি বিনোদন

প্রাপ্তবয়ষ্কদের জন্য স্পেনে চালু হচ্ছে অভিনভ পাশপোর্ট।

প্রাপ্তবয়স্ক ছাড়া কেউ যেন অনলাইনে পর্নোগ্রাফি দেখতে না পারে সেজন্য ‘পর্ন পাসপোর্ট’ চালু করছে স্পেন। পর্নোগ্রাফির যেসব সাইট রয়েছে তারা এর মাধ্যমে তাদের গ্রাহকের বয়স ১৮ বছর বা তার বেশি কিনা সেটি যাচাই করতে পারবে। খবর ইউরোপভিত্তিক গণমাধ্যম পলিটিকোর।
মূলত এটি একটি মোবাইল অ্যাপস। এটি বয়স যাচাইয়ের পাশাপাশি নীল ছবি দেখার সুযোগও সীমাবদ্ধ করে দেবে।


স্থানীয়ভাবে অ্যাপসটিকে ‘পর্ন পাসপোর্ট’ নাম দেওয়া হয়েছে। এটির অফিসিয়াল নাম হলো ‘ডিজিটাল ওয়ালেট বেটা’।
অ্যাপসটি একটি ওয়ালেট হিসেবে কাজ করবে। স্পেনের সরকার যে পাঁচটি পরিচয়পত্র প্রদান করে থাকে সেগুলোর মধ্যে থাকা তথ্যের ভিত্তিতে এটি বয়স যাচাই করবে।
একবার যাচাই শেষে একজন গ্রাহককে ৩০ ক্রেডিট দেওয়া হবে। যেগুলো ব্যবহার করে তারা এক মাস পর্ন দেখতে পারবেন। তবে কেউ যদি চায় তাহলে আরও ক্রেডিট নিতে পারবে। এ বছরই ‘পর্ন পাসপোর্ট’-এর কার্যক্রম শুরু হবে।
অনলাইনে পর্নোগাফ্রি দেখার ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করতে দীর্ঘদিন ধরে ক্যাম্পেইন চালিয়ে আসছে ডেল উনা ভুয়েলতা নামের একটি সংস্থা। কয়েকদিন আগে তারা একটি পরিসংখ্যান প্রকাশ করে। এতে দেখা যায় অপ্রাপ্ত বয়স্করা পর্নোগ্রাফিতে ভয়াবহরকম আসক্ত হয়ে পড়েছেন।
স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সান্তেজ সংবাদমাধ্যম এল পেইসকে পরিসংখ্যানের তথ্যকে ‘বিধ্বংসী’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেছেন, “১৫ বছরের নিচে যত শিশু আছে তাদের প্রায় অর্ধেক অনলাইনে পর্নোগ্রাফি দেখছে।”

 

এন এন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *