দেশের খবর

নাগপুরে অন্তঃসত্ত্বা তরুণীকে ধর্ষন!!! ইউটিউবে ভিডিও দেখিয়ে গর্ভপাত করানো হয়….

বিউরো ঃ-  নাগপুরে (Nagpur) ভয়াবহ ঘটনা। অন্তঃসত্ত্বা তরুণীকে ধর্ষণের পর জোর করে তাঁর গর্ভপাত করানো হয়। অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় প্রথমে ধর্ষণ করা হয় ওই তরুণীকে। এরপর অত্যাচার করে, ঘরের মধ্যেই তাঁকে গর্ভপাত করতে বাধ্য করাতে হয়।

যে ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।

রিপোর্ট প্রকাশ, সোহেল ওয়াহাব খান নামে এক যুবকের সঙ্গে প্রায় ৬ বছর ধরে সম্পর্কে জড়ান নাগপুরের যশোধরা নাগরের এক তরুণী। সম্পর্কে থাকাকালীনই ওই তরুণীর উপর মানসিক অত্যাচার শুরু করে সোহেল। এরপর ২০১৬ থেকে ওই তরুণীকে যৌন হেনস্থা (Rape) শুরু করে সোহেল নামের ওই তরুণ (Youth)। এরপর ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হলেও, তাঁর উপর ধর্ষণ বন্ধ করেনি সোহেল। কীভাবে ওই গর্ভপাত করতে হবে, তা ইউটিউবে দেখতে বলা হয় তরুণীকে।

ইউটিউবে (Youtube) গর্ভপাতের (Abortion) ভিডিয়ো দেখিয়ে, বাড়ির মধ্য়েই ওই তরুণীকে নিজের গর্ভের ভ্রুণ নষ্ট করতে বাধ্য করে সোহেল। কয়েক সপ্তাহ আগে সোহেল ওই তরুণীকে বাধ্য করে গর্ভপাত করতে। সম্প্রতি বিষয়টি জানাজানি হতেই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে শেষ পর্যন্ত পুলিশের দ্বারস্থ হন নির্যাতিতা। সম্পর্কের প্রথম থেকে গত ৬ বছর ধরে তাঁর উপর সোহেল কীভাবে অত্যাচার করে, তা জানানো হয় পুলিশকে।

পুলিশের (Police) তরফে জানা যায়, সোহেল ওয়াহাব খান নামে ওই যুবক আগে থেকেই বিবাহিত। বাড়িতে তার স্ত্রী, সন্তান রয়েছে। কিন্তু রোজগার তেমন নেই। সবকিছু লুকিয়ে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে সোহেল দিনের পর দিন ধরে ওই তরুণীর সঙ্গে সহবাস করতে শুরু করে। সেই সঙ্গে তরুণীর উপর চলে তার ধর্ষণ এবং অত্যাচারের পালা। শুধু তাই নয়, প্রথম বিয়ের বিচ্ছেদের পর দ্বিতীয়বার সংসার পাতে সোহেল। দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে বাড়িতে তার এক সন্তানও রয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে নাগপুরের ওই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর পুলিশও ধ্বন্দে পড়ে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *