রাজনৈতিক খবর

নতুন মুখদের প্রাধান্য দিয়ে তৃণমূলের ব্লক সভাপতিদের পদে বদল হতে চলেছে !

বিউরো ঃ- ২০২৩ এ পঞ্চায়েত নির্বাচন। সেই লক্ষ্যেই এবার তৃণমূলের সুন্দরবন ও যাদবপুর,  ডায়মন্ড হারবার সাংগঠনিক জেলার ব্লক সভাপতি বদল হতে চলেছে। মাদার ও যুব এই দুই স্তরেই পরিবর্তন করা হবে। জেলা তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, একাধিক ব্লকের নতুন মুখদের প্রাধান্য দেয়া হবে। ইতিমধ্যেই জোরকদমে এই কাজের জন্য ঝাড়াই বাছাইয়ের কাজ শুরু করে দিয়েছেন রাজ্য তৃণমূল নেতৃত্ব ও আইপ্যাক সংস্থা। তৃণমূল কংগ্রেসের এক শীর্ষ নেতা বলেন, চলতি মাসেই ব্লক সভাপতিদের নাম ঘোষণা করা হবে। এদিকে ইতিমধ্যেই দুই সাংগঠনিক জেলায় কে মাদার ও যুব তৃনমূলের ব্লক সভাপতি হবেন? কাকেই বা পথ থেকে সরতে হবে ?এই নিয়ে দলের কর্মীদের মধ্যে জোর চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে। অনেকেই দুই জেলা তৃণমূলের মাদার ও যুব সভাপতিদের কাছে তদ্ধির করতে ও শুরু করেছেন বলে শোনা গিয়েছে । যদিও এই বিষয়ে জেলা তৃণমূলের সভাপতিরা এখনই মুখ খুলতে নারাজ।

জানা গিয়েছে সুন্দরবন সাংগঠনিক জেলায় মোট ১৯ টি ব্লক ও যাদবপুর- ডায়মন্ড হারবার সাংগঠনিক জেলায় ১৪ টি ব্লক। এই সবকটি ব্লকেই মাদার ও যুব সংগঠনের ব্লক সভাপতির পরিবর্তন করা হবে। বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকেই এই নিয়ে কাজ শুরু হয়ে যায় তৃণমূলের রাজ্যস্তরে।মূলত, যুব সংগঠনের প্রায় ৯৫ শতাংশ ও মাদার সংগঠনের ৮০ শতাংশ ব্লক সভাপতি বাদ পড়তে চলেছেন। এমনকি, এও সিদ্ধান্ত হয়েছে যুব সংগঠনের ৪০ বছরের বেশি ব্যক্তিদের ব্লক সভাপতি করা হবে না। পাশাপাশি, বয়স্ক ব্যক্তিদেরও মাদার সংগঠনে ব্লক সভাপতি পদে রাখা যাবে না। যারা বিধানসভা নির্বাচনে তলে তলে বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে কাজ করেছেন, সেই রিপোর্ট আইপ্যাক সংস্থা সংগ্রহ করেছে। সেই রিপোর্টও এই ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবে। সভাপতি নির্বাচনের ক্ষেত্রে দেখা হবে সমস্ত ব্লকের কর্মীদের কাছে তার গ্রহণযোগ্যতা। এ ছাড়াও স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে তার ভাবমূর্তি কতটা স্বচ্ছ বা তার বিরুদ্ধে কোনো দুর্নীতির অভিযোগ আছে কিনা, তাও দেখা হবে। এই বদল নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে জেলায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *