জেলার খবর রাজ্যের খবর

নকল করতে বাধা দেওয়াই স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ভাঙচুর মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের।

মুহাম্মদ জাকারিয়া, রায়গঞ্জঃ

মাধ্যমিক পরীক্ষায় গণটুকা টুকিতে কর্তব্যরত এক শিক্ষক বাঁধা দেওয়ার ফলে ছাত্ররা প্রতিবাদস্বরূপ ইটাহার হাই স্কুলের বেশ কয়েকটি শ্রেনীকক্ষে ভাঙচুর করে মাধ্যমিক পরিক্ষার্থীরা। শনিবার মাধ্যমিক পরীক্ষার শেষ দিন ছিল, আর এদিনই পরীক্ষা চলাকালীন এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে, উত্তর দিনাজপুর জেলার ইটাহার হাইস্কুলে। সূত্রের খবর এ বছর ইটাহার হাইস্কুলে মাধ্যমিকের সিট পড়েছিল দিঘনা হাই স্কুলের, মারনাই শরৎচন্দ্র হাই স্কুলের এবং কাপাশিয়া এএম হাই স্কুলের। এবং মোট ২৯৬ জন পরীক্ষার্থী ছিল। এর পূর্বেও উত্তর দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন স্কুলে শান্তিপূর্ণভাবে পরীক্ষার সম্পূর্ণ হলেও শেষের দিনে গণটুকাটুতে বাধা দেওয়ার ফলে পরীক্ষা কেন্দ্রে উত্তেজনা ছড়িয়েছে। মাধ্যমিক শেষ পরীক্ষার দিন ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষা সময় ১ পরীক্ষার্থীকে নকল করতে বাধা দেন কর্তব্যরত শিক্ষক। তাই এর প্রতিবাদে বিদ্যালয়ে একাধিক শ্রেনী কক্ষে থাকা দেওয়াল ঘড়ি, ইলেকট্রিক বোর্ড, চেয়ার টেবিল ভাংচুর করা সহ ১০ টি সিলিং ফ্যান ভেঙে ফেলে কাপাশিয়া ও দিঘনা স্কুলের আংশিক পড়ুয়ারা বলে অভিযোগ।

তারপরে পরিস্থিতি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হলে খবর দেওয়া হয় ইটাহার থানায়। খবর পেয়ে ঘটনা স্থানে পৌঁছায় ইটাহার থানার পুলিশ বাহিনী। যাতে কোন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয় সেদিকে করা নজরদারি রাখে পুলিশ বাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *