রাজ্যের খবর জেলার খবর

ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ২

হবু বরকে মারধর করে কিশোরীকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে গিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। পাশের মাঠে গিয়ে বছর পনেরোর মেয়েটিকে গণধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। গত সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলায়। মেয়ের বাবা শনিবার অভিযোগ দায়ের করেন থানায়। মাঝে পাঁচদিন কেটে গেল কেন? মেয়েটির বাবা পুলিশকে জানিয়েছেন, ঘটনায় জড়িতেরা গ্রামের ছেলে। নানা দুষ্কর্মে যুক্ত। তারা ভয় দেখাচ্ছিল। অনেক ভেবেচিন্তে তবে থানায় আসার সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।

অভিযোগ পেয়ে শনিবারই অবশ্য দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গণধর্ষণের মামলাও রুজু হয়েছে। আরও একজনের খোঁজ চলছে। রবিবার ধৃতদের বসিরহাট এসিজেএম আদালতে তোলা হলে বিচারক পাঁচ দিন পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মেয়েটি নবম শ্রেণিতে পড়ে। পরিবারের তরফে এক যুবকের সঙ্গে বিয়ের ঠিক হয়েছে। আঠারো বছর পেরোলে মেয়ের বিয়ে দেবেন বলে ঠিক করেছেন তাঁরা। হবু বরের সঙ্গে মেলামেশায় আপত্তি নেই পরিবারের। সোমবার সেই যুবকের সঙ্গেই বেড়াতে বেরিয়েছিল কিশোরী। অভিযোগ, ফেরার পথে নির্জন এলাকায় পথ আটকায় তিন দুষ্কৃতী। যুবককে মারধর করে মেয়েটিকে রাস্তার পাশে মাঠে টেনে নিয়ে যায়। সেখানে ঝোপের আড়ালে তার উপরে যৌন নির্যাতন চালানো হয় বলে অভিযোগ।

কিশোরীর বাবা বলেন, ‘‘হবু জামাইকে মারধর করে ওরা আমার মেয়ের উপরে অত্যাচার চালিয়েছে। তবে হবু জামাই গ্রামের লোকজনকে ডেকে জড়ো করেন। দুষ্কৃতীরা পালায়।’’ স্থানীয় এক গ্রামীণ চিকিৎসকের কাছে শুশ্রূষা করিয়ে মেয়েকে বাড়ি আনেন বাবা। শনিবার মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয় পুলিশের তরফে। তাকে হোমে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের দাবি, তাদের ফাঁসানো হয়েছে। পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *