অর্থনীতি আন্তর্জাতিক দেশের খবর

কল ধরলেই ফোনের তথ্য ‘গায়েব’, আসলে কি তাই?

বিশেষ কোনো নম্বর থেকে আসা কল রিসিভ বা সেই নম্বরে কল ব্যাক করলে ফোনের সব তথ্য হ্যাকারের কাছে চলে যাওয়ার দাবি সঠিক নয় বলে মন্তব্য করেছেন সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, শুধু ভয়েস কলে কথা বলে মোবাইল ফোনে এমন ‘ইটারসেপ্ট’ করা যায় না।
সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়। যেখানে এক ভুক্তভোগীর বরাতে বলা হয়, শুরুতে +৯২ অথবা +৯৯ যুক্ত কোনো নম্বর থেকে আসা কল রিসিভ বা ওই নম্বরে কল ব্যাক করে কথা বললেই মোবাইলের সব তথ্য চলে যাবে হ্যাকারের কাছে। শুধু তাই নয়, কোনো ধরনের পিন শেয়ার না করলেও বিকাশ, নগদ, উপায়ের মতো মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (এমএফএস) অ্যাকাউন্টে থাকা অর্থও হাতিয়ে নিয়ে যাবে হ্যাকাররা।
গত ৮ এপ্রিল ফেসবুকে পোস্ট করা ভিডিওটি এরই মধ্যে ভাইরাল। ভিডিওর প্রতিক্রিয়ায় অনেকেই তাদের আশঙ্কার কথা জানাচ্ছেন।
তবে ভিডিওর তথ্য সঠিক নয় বলে জানান সময় টেলিভিশনের প্রযুক্তি এবং সম্প্রচার প্রধান এবং প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ সালাউদ্দিন সেলিম। এটাকে তিনি বিভ্রান্তিকর বলে মন্তব্য করেন।
সেলিম বলেন, কোনো নম্বর থেকে কল এলে তা রিসিভ করার সঙ্গে সঙ্গে ফোন হ্যাক হয়ে যাওয়া কিংবা ফোনের সব তথ্য বেহাত হয়ে যাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। এরকম প্রযুক্তি এখনো নেই।
তবে তিনি সতর্ক করে বলেছেন, ‌‘কোনো নম্বর থেকে এসএমএস এলে তার রিপ্লাই দিলে কিংবা কোনো লিংক পাঠালে তাতে ক্লিক করলে কিছু তথ্য বেহাত হয়ে যেতে পারে।’
এমন ক্ষেত্রে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন তিনি।
ভাইরা ভিডিওটির বিষয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের কম্পিউটার ইন্সিডেন্ট রেসপন্স টিমের (সার্ট) প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী সাইফুল আলম খান সংবাদমাধ্যমকে বলেন, এ ধরনের ভিডিও বিভ্রান্তি ছড়ায়। কোনো কিছু যাচাই না করে এভাবে ভিডিও করা ঠিক হয়নি।
সাইবার৭১-এর পরিচালক আবদুল্লাহ আল জাবের সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘শুধু ফোন কলের মাধ্যমে মোবাইলের যাবতীয় তথ্য হ্যাক করার কোনো প্রযুক্তি আবিষ্কৃত হয়েছে বলে জানা নেই। এমনটা হলে হ্যাকার শুধু দুটি কোড নম্বর থেকে কেন ফোন করবে? সে তো হাজারটা কোড বানাতে পারত।’
ভিডিওর বিষয়টি পুলিশের আইসিটি বিভাগ যাচাই বাছাই করে দেখছে বলে পুলিশ সদর দফতরের একটি সূত্র থেকে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *