প্রযুক্তি অর্থনীতি রাজ্যের খবর

কলকাতায় গিয়ে অতিরিক্ত খরচা না করে ঘুরে বেড়ান কালকাতা মেট্রেতে করে।

কলকাতা ঘুরতে গিয়ে সঠিক গাইড লাইনের অভাবে অনেকেই ট্যাক্সি বা ক্যাবের পিছনে অনেক টাকা খরচ করছেন। যারা ওই অতিরিক্ত খরচ কমিয়ে সুন্দর ভাবে ঘুরতে চাচ্ছেন তাদের ভরসার অন্য নাম হতে পারে কলকাতা মেট্রো রেল। এ সম্পর্কে আপনাদের কিছু বিষয় জানাচ্ছি। মেট্রো রেল গুলো প্রতি ৪ মিনিট পর পর সকাল থেকে রাত ১০.২০ মিনিট পর্যন্ত পাওয়া যায়। আপনি যদি টাকা কে পাইলটের মত উড়াতে ভালোবাসেন তবে এই পোস্ট টি আপনাদের জন্য নয়।
অনেকেই বনগাঁ থেকে সরাসরি শিয়ালদাহ স্টেশনে চলে আসেন। এর পর ক্যাবে ১০০ – ১৫০ রুপি দিয়ে পার্ক স্ট্রিট বা মির্জা গালিব স্ট্রীটে। আপনারা সরাসরি বনগাঁ থেকে দমদম জংশনে এসে নামবেন (দমদম জংশন এবং দমদম ক্যান্টনমেন্ট স্টেশনের মধ্যে প্যাঁচ লাগাবেন না)। এখান থেকে মাত্র ১০ রুপি দিয়ে মেট্রো রেলে করে পার্ক স্ট্রীট চলে আসতে পারবেন।

কলকাতা মেট্রো রেলের রুট:—-

দমদম > বেলগাছি > শ্যাম বাজার > শোভা বাজার > গিরিশ পার্ক > M.G রোড > সেন্ট্রাল > চাঁদনী চক > স্প্লানেড > পার্ক স্ট্রীট > মায়দান > রবীন্দ্র সনদ > নেতাজী ভবন > জতীন দাস পার্ক > কালীঘাট > রবীন্দ্র সরোবর > টালীগঞ্জ > নেতাজি >মাস্টার দা সুর্যসেন > গীতাঞ্জলী > কবি নজরুল > শহীদ ক্ষুদিরাম > কবি সুভাস। ভাড়া ৫, ১০, ১৫, ২০ রুপি। আপনি যদি দমদম থেকে পার্ক স্ট্রীট আসেন তবে ভাড়া ১০ রুপি আবার পার্ক স্ট্রীট থেকে চাঁদনী চক যান তবে ভাড়া ৫ রুপির মত। চিন্তা করার কোন কারন নেই এই দ্রুত গামী মেট্রো রেলের প্রতিটি স্টেশনে সে স্টেশন থেকে যে স্টেশনে যাবেন সেখানকার ভাড়া লেখা আছে। আপনি টিকিট কেটে উপরের সাইনবোর্ড দেখে বাম বা ডান দিকের প্লাটফর্মের ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করবেন।

এবার আসুন আলোচনা করি কোন মেট্রো রেলওয়ে স্টেশনের পাশে কি কি আছে…

★ভিক্টরিয়াল মেমোরিয়ালঃ ময়দান মেট্রো স্টেশন।
★গড়ের মাঠঃ ময়দান মেট্রো স্টেশন।
★হাওড়া ব্রিজঃ মহাত্মা গান্ধী মেট্রো স্টেশন।
★ইন্ডিয়ান মিউজিয়ামঃ পার্ক স্ট্রীট অথবা ময়দান মেট্রো স্টেশন।
★জোড়া সাঁকোর ঠাকুর বাড়িঃ গিরিশ পার্ক মেট্রো স্টেশন।
★রাম মন্দিরঃ মহাত্মা গান্ধী মেট্রো স্টেশন।
★মার্বেল প্লেসঃ মহাত্মা গান্ধী মেট্রো স্টেশন।
★ময়দানঃ ময়দান মেট্রো স্টেশন।
★কালীঘাট কালী মন্দিরঃ কালীঘাট মেট্রো স্টেশন।
★ইডেন গার্ডেনঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★কার্জন পার্কঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★নেতাজী সুভাস স্টেডিয়ামঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★মিনেলিয়াম পার্কঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★দ্বিতীয় হুগলী ব্রিজঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★কলকাতা হাইকোর্টঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★বাবুঘাট কলকাতাঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★প্রিন্সেপ ঘাটঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★ফোর্ট উইলিয়ামঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★শহীদ মিনারঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★সেন্ট পল চার্চঃ রবীন্দ্র সদন মেট্রো স্টেশন।
★চাঁদনী চকঃ চাঁদনী চক মেট্রো।
★নিউমার্কেটঃ এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশন।
★বড় বাজারঃ মহাত্মা গান্ধী মেট্রো স্টেশন।
★রবীন্দ্র সরোবরঃ রবীন্দ্র সরোবর মেট্রো স্টেশন।
★লায়ন সাফারি পার্কঃ রবীন্দ্র সরোবর মেট্রো স্টেশন।
অনেকেই নিউমার্কেট এলাকায় অনেক সময় হোটেল সংকটের কারনে বেশি দামে হোটেল ভাড়া দিয়ে থাকে । আপনারা ইচ্ছে করলেই দমদম বা শোভা বাজার এদিকের হোটেলে থাকতে পারেন । সেক্ষেত্রে মাত্র ১০ বা ৫ রুপি দিয়ে এসপ্ল্যানেড মেট্রো স্টেশনে চলে আসুন। এখান থেকে মিনিট ২ হাটলেই নিউমার্কেট এলাকা।

বি.দ্র. মেট্রো রেলওয়ে স্টেশন গুলো থেকে ভ্রমনের স্থান গুলো খুব বেশি হলে ১ কিঃ মিঃ এর মধ্যে অবস্থিত, যারা ট্রাভেলার তাদের জন্য এটা কিছুই না। মেট্রো রেলের স্টেশন গুলোতে ছবি তুলা নিষিদ্ধ এবং এই ট্রেন গুলোতে আপনি বড় বড় বস্তা ক্যারি করতে পারবেন না। সাধারন ব্যাগ , হ্যান্ড ব্যাগ, অফিস ব্যাগ, শপিং ব্যাগ ইত্যাদি বহন করতে পারবেন। ভালো থাকবেন।
সংগ্রহিত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *