অর্থনীতি জেলার খবর প্রযুক্তি রাজ্যের খবর

“এসি ভিলেন” জানাল বিদ্যুৎ পর্ষদ

সূর্যের রুদ্রতেজে পুড়ছে বাংলা। পাহাড়ি দুই জেলা বাদে উত্তর থেকে দক্ষিণে বইছে তাপপ্রবাহ। অতিরিক্ত গরমে এসিই ভরসা আম জনতার। কিন্তু এই গরমে এই এসি’ই কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে বঙ্গবাসীর। এসি’র নিয়ন্ত্রণহীন ব‌্যবহারের কারণে রাজ্যের বহু জায়গায় শুরু হয়েছে বিদ্যুৎ বিভ্রাট। যা এই গরমে উপরি পাওনা।

রবিবার শহর কলকাতার পাশাপাশি হাওড়া হুগলী দুই ২৪ পরগনা সহ বিভিন্ন জেলা থেকে খবর আসতে শুরু করে এই গরমে লোডশেডিং’র। সূত্রের খবর কলকাতা পুর এলাকার ৯৩ নম্বর ওয়ার্ডে গোবিন্দপুর ও দাশনগরে রবিবার সন্ধ‌্যা থেকেই বিদ্যুৎ বেপাত্তা। রাত একটা বাজলেও বিদ্যুৎ আসেনি। রাস্তায় দাঁড়িয়ে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় মানুষ। গোবিন্দপুর ও দাশনগরে মত, টালিগঞ্জ, বেহালা, জোকা, হরিদেবপুর, ঠাকুর পুকুর, বেলঘরিয়া, বিরাটি, দমদম, শ্যামবাজার ,বাগুইআটি, আমহার্স্ট স্ট্রিট, যাদবপুর, চেতলা, গড়িয়া, পার্ক সার্কাস সহ বিভিন্ন এলাকায় রবিবার গভীর রাত পর্যন্ত লোড সেডিং ছিল বলে জানা গিয়েছে।  শহর কলকাতার বাইরেও লোডশেডিং’র খবর এসেছে বাঁকুড়া, নদীয়া, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, দুই দিনাজপুর, মালদা ও পুরুলিয়া জেলা থেকেও।

রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদ এবং কলকাতা বিদ্যুৎ পর্ষদ সূত্রের খবর, এবার গরম থেকে বাঁচতে অনেকেই এসি নিয়েছেন। কিন্তু সেগুলির ব‌্যাপারে বিস্তারিত তথ‌্য জানানো হয়নি বিদ্যুৎ পর্ষদকে। যার ফলে ট্রান্সফর্মারে ‘আননোন লোড’বেড়ে গেছে। শুরু হয়েছে বিদ্যুৎ বিভ্রাট।  বিদ্যুৎ পর্যদের আশঙ্কা অত‌্যধিক লোডের ফলে যেকোন সময় আগুন লেগে যেতে পারে। সাধারণ মানুষকে সচেতন হবার বার্তা দিয়েছে পর্যদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *