দেশের খবর প্রযুক্তি

আসল কপি নিয়ে ঘোরার দিন শেষ, এসে গেল ‘ভার্চুয়াল আধার কার্ড’

বিউরোঃ  পকেটে নিয়ে ঘুরে বেড়ানোর ঝুঁকি নিতে হবে না। এবার ‘ভার্চুয়াল আধার কার্ড’-এর ব্যবস্থা করল ‘ইউনিক আইডেন্টিফিকেশন অথরিটি অফ ইন্ডিয়া’ (UIDAI)। গ্রাহকের মোবাইলেই স্থায়ীভাবে থাকতে পারবে এই পরিচয় পত্র।

দেশের বর্তমান চিত্র বলছে, পরিচয়পত্র বলতেই এখন সবার আগে নাম আসে আধার কার্ডের। বড় থেকে ছোট সবার জন্যই রয়েছে ইউনিক বা অনন্য পরিচয়। সম্প্রতি সেই তালিকায় যোগ হয়েছে ‘বাল আধার কার্ড।’ পাঁচ বছরের কমবয়সি শিশুদের জন্য এই কার্ডের ব্যবস্থা করেছে UIDAI। নতুন করে সদ্যোজাতের আধার কার্ডের ব্যবস্থা করেছে আধার কর্তৃপক্ষ। স্থানীয় আধার এনরোলমেন্ট সেন্টার ছাড়াও কিছু হাসপাতালে রয়েছে সদ্যোজাতের পরিচয় পত্র রেজিস্ট্রেশেনের সুবিধা।

তবে আধার কার্ড থাকলেও তা সঙ্গে রাখা নিয়ে তৈরি হয়েছে সমস্যা । নিত্যদিন আধার কার্ড সঙ্গে রাখার ঝুঁকিও রয়েছে বিস্তর। আসল কার্ড হারিয়ে গেলে পড়তে হবে সমস্যার মুখে। গ্রাহকের এই সমস্যার সামধানে এগিয়ে এসেছে আধার অথরিটি। ১৬ সংখ্যার নম্বর দিয়ে তৈরি হয়েছে এই ভার্চুয়াল আধার আইডি। UIDAI-এর ওয়েবাসাইট থেকে তৈরি করা যায় ভার্চুয়াল আধার কার্ড। জেনে নিন, কীভাবে এই কার্ড তৈরি করবেন আপনি? ভার্চুয়াল আধার কার্ডের গুরুত্বই বা কী ?

ভার্চুয়াল আধার কার্ড আসলে কী ?

১. ভার্চুয়াল আধার কার্ড হল একটা ১৬ সংখ্যার আইডি।
২. আধার কার্ডের পরিবর্তে এই নম্বরও নিজের কাছে রাখা যায়।
৩. সব ধরনের ব্যাঙ্কিং সম্পর্কিত সুবিধা এই কার্ডের মাধ্যমে পাওয়া যায়।
৪. বলা হয়, এর মেয়াদ কেবল একদিনের জন্য দেওয়া হয়ে থাকে। তবে গ্রাহক অন্য কোনও ভার্চুয়াল আইডি তৈরি না করা পর্যন্ত এর মেয়াদ ফুরোয় না।
৫. বর্তমানে আধারের ভার্চুয়াল আইডির কোনও মেয়াদকাল নেই।

কীভাবে আধারের ভার্চুয়াল আইডি তৈরি করবেন ?

১. প্রথমে আধারের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট https://www.uidai.gov.in-এ যান।
২. এবার আধার পরিষেবায় লগ ইন করে ভার্চুয়াল আইডিতে ক্লিক করুন
৩. একটা নতুন পেজ আপনার সামনে খুলে যাবে। সেখানে ১৬ সংখ্যার আধার নম্বর জমা দিন।
৪. এবার ওটিপির জন্য সিকিউরিটি কোড তৈরি করুন।
৫. নিজের রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বরে ওটিপি দেখতে পাবেন।
৬. ওটিপি জমা দিয়ে এবার ভিআইডি অপশনে ক্লিক করুন।
৭. ভার্চুয়াল আইডির জন্য আপনার কাছে এবার একটা বার্তা চলে আসবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *