Uncategorized

আবাস যোজনার নথি সংগ্রহের নাম করে গৃহবধূকে ধর্ষণ, অভি‌যুক্ত শাসকদলের পঞ্চায়েত সদস্য

আবাস যোজনার ঘর পাইয়ে দেওয়ার নাম করে বাড়িতে গিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্যের বিরুদ্ধে। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে মথুরাপুরের পশ্চিম গ্রাম পঞ্চায়েতের তাজপুর গ্রামে। ঘটনায় অভিযুক্ত তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্য বাপ্পাদিত্য হালদারের বিরুদ্ধে মথুরাপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিত মহিলা ও তার পরিবারের লোকজন ।

জানা যায়, গত বুধবার সকালে নির্যাতিত মহিলার স্বামীকে আবাস যোজনার ঘর পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ফোন করে তাজপুর গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্য বাপ্পাদিত্য হালদার। ঘর পাইয়ে দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় নথিপত্র চান পঞ্চায়েত সদস্য। পরে দুপুরে নথিপত্র জমা নিতে নির্যাতিত মহিলার বাড়িতে যান অভিযুক্ত তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্য।

সেই সময় নির্যাতিত মহিলা একাই বাড়িতে ছিলেন আর সেই সুযোগে মহিলাকে জোর করে ধর্ষণ করে তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য এমনটাই অভিযোগ করেন ঐ গৃহবধূ। এর পরেই মহিলার স্বামী বাড়িতে ফিরলে তার উপর হওয়া অত্যাচারের কথা স্বামীকে জানায়। মথুরাপুর থানায় অভিযুক্ত তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্যের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন পরিবারের লোক।

অন্যদিকে অভিযোগের পর ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মথুরাপুর থানার পুলিশ।অবশ্য এই ঘটনায় মথুরাপুর ১ নং ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি মানবেন্দ্র হালদার জানান, তাজপুর গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্য বাপ্পাদিত্য হালদারের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে স্যার সত্যতা যাচাই করে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে দল ।

যদি তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্যের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সত্য হয় তাহলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। অন্যদিকে ন্যায় বিচার চেয়ে অভিযুক্ত তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্যের শাস্তির দাবি জানিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ নির্যাতিত মহিলা ও তার পরিবারের লোকজন। ঘটনায় অভিযুক্ত পঞ্চায়েত সদস্যের শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেন বিরোধীরা।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *